facebook প্রেম
 facebook প্রেম

facebook প্রেম

ফেসবুক এ একটা মেয়ে দেখলাম, উরে ভাই কি যে দেখলাম। "দিল্লী লাডু"  খাওয়ার মত   friend request টা পাঠিয়েই দিলাম।ভেবেছিলাম প্রেমের বিশাল ঝড় উঠবে কিন্তু হলনা,আচ্ছা একটু হাওয়াও তো বইতে পারতো? মনে মনে একটাই গান বাজে "ধ্যাততারিকি ধ্যাততারিকি পটেও পটে না,ছুড়ি তোমার এত গরম ছিপে ওঠে না"।কিন্তু ভাই ছিপ ত আমি সরাবো না।ছোটো থেকেই থাম্মার একটাই ভাঙা record শুনে যাচ্ছি- যে সয় সে রয়।কতই তো ডানা  কাতা পরি এল গেল - জীবন টা চানাচুর ভাজা করে দিয়ে চলে গেল।কিন্তু এইবার আমি পাথরের মত ঝড় বৃস্টি সহ্য করে একই জায়গায় দারিয়ে থাকব।যেমন বলা তেমনি কাজ।প্রতিদিন নিয়মের বেড়াজাল না ভেঙেই friend request পাঠিয়ে মনের দরজায় knock করে যাচ্চি কিন্তু request reject করে মুখের ওপর দরজার পাল্লা বন্ধ করে দিচ্ছে। কোন কোন শুভাকাঙ্ক্ষী বলছে লেগে থাক হয়ে যাবে,আবার কেউ কেউ মন দু- টুকরো করে বলছে ছাড় তো ভাই অন্য টা try কর।আমি তো শালা দো -টানায় পড়ে গেলাম।মনে হচ্ছে আমাজন এর জংগলে একদিকে বাঘ আর একদিকে কুমির। এদিকে মেয়ে তো আবার একের পর এক ছবি upload দিয়ে চশমার ভেতর থেকে আমার চোখ বেড় করে আনছে। এতই রুপ যে মনে বাংলাদেশ এর সুর বাজে "পরে না চোখের পলক,একি তোর রুপের ঝলক" অন্যদিকে আমার নিয়ম কিন্তু চলছেই।উফ: লম্বা request -reject   এর সংগ্রামের পর অবসান হল ২১শে জুলাই   request accept  এর মধ্য দিয়ে।কিন্তু আমার কাছে তখন শুধু একটাই  option  যে only friendship।তাই ই সই- বিশাল মরুভুমি তে একটা হলেও তো  কাটাগাছ পাওয়া গেল।আমার তো দিন রাত এখন একটাই কাজ চোখে রঙিন স্বপ্ন আর বহু প্রত্যাশিত message এর  reply। স্বপ্নের মত ভালই কাটছে দিনগুলো কিন্ত বাঙালি তো বসতে দিলে খেতে চাওয়ার মত সামনাসামনি বসে কথা বলা বা হাত ছুঁয়ে চলা।আজ ২১শে আগস্ট এই একমাস আমরা টুকি - টুকি খেল্লাম আর মেসেজ করলাম।ওহ! বলাই হয়নি যে শেষ ৪দিন ধরে আমরা ফোনে কথাও বলছি।কেনকি চ্যাট করে আর নাহি মেটে সাধ।আজ অনেক কষ্টে ৫৬ইঞ্চি বুক টা সাহস বাড়িয়ে ৬০ইঞ্চি করে দেখা করার কথা তা বলেই ফেললাম।অনেক হ্যা- না এর পর ২৫শে আগস্ট দেখা করার দিন ঠিক হল একটা নামি দামি restrurent এ।মনে তো প্রেমের জোয়ার উথালপাতাল দিচ্ছে। মনে আবার সেই বাংলাদেশী সুর "আমি গ্যান হারাব মরেই যাব, বাঁচাতে পারেবেনা কেউ।" সময় যেন মেঘের মত থমকে দারিয়ে আছে- কাটছে নাতো কাটছেই না।২৪তারিখ বন্ধু দের কাছ থেকে টাকা ভিক্ষা করে একটা টেডি বিয়ার কিনে নিয়ে এলাম এটা ভেবে যে সুন্দরী মেয়ের সাথে dating এ যাচ্ছি।ওহ বলা হয়নি সুমনের flipkart  থেকে নেওয়া জুতা টাও নিয়ে এলাম।নিজেকে শাহরুখ লাগতেই হবে।ফিটফাট হয়ে সময়ের আগেই চলে গেলাম, কিন্তু সময় তো হয়ে গেল মহারানীর দেখা নেই।তাহলে কি আসবেনা? - এটা  ভাবতেই মাথায় বাজ পরল এটা ভেবে যে ১০০০ টাকা ধার করে ফেলেছি।এই সব ভাবতে ভাবতেই দেখি ব্ল্যাক জিন্স আর হলুদ টপ পড়ে একটি মেয়ে কোমর টা হেলিয়ে দুলিয়ে এসে আমাকে হাই বলল। এ কি দেখি ভাই!! আমার চোক্ষু তো চরক গাছ।ছবি তে তো পরি র বাস্তবে এরকম শাঁকচুন্নি? মনে হল আমি সিতার মত মাটি ফুরে ঢুকে যাচ্ছি।কোথায় গেল সেই কাঠালি কলার মত গায়ের রং?  এ যে কালো কয়লা ভাই। গোলাপের পাপড়ির মত ত  ঠোট যেন ভিমরুল এ কামড়ে মোটা কুমড়োর ফালি হয়ে গেছে। আমি তো আর নেই।এই যে দৌড় সেই দৌড়  লাগালাম।শেষমেষ সবার হাসির পাত্র হলাম।জয়  photo editing app এর জয়, জয় Facebook এর জয়।


Click Here To See More